মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ ট্রাস্ট
MuktiJuddho e-Archive Trust
http://www.earchive.site/

প্রতিষ্ঠিত হয় ২০০৭ সালে; বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সংগ্রহ, সংরক্ষণ, গবেষণা ও বিৃকতিরোধ এবং প্রচার নিয়ে কাজ করছে এই প্রতিষ্ঠান।
বর্তমানে মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভের ব্যবহারকারী পাঠকের সংখ্যা প্রায় ৫০ লক্ষ।

সভাপতিঃ শান্তা আনোয়ার
প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালকঃ সাব্বির হোসাইন

প্রতিষ্ঠানটি প্রথমে ২০০৭ হতে 'বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ পাঠাগার ও গবেষণা কেন্দ্র' নামে কার্যক্রম পরিচালনা করেছিল। পরবর্তীতে ২০১৬ সালের মার্চ মাসে প্রতিষ্ঠানটি 'মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ ট্রাস্ট' নামে নিবন্ধিত হয়। ২০১৪ সালের ০৪ মে অনলাইনে ডিজিটাইজড আর্কাইভ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। ২০১৬ সালের ১৪ নভেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়। ২০১৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর নতুন ওয়েব ঠিকানা ব্যবহার শুরু হয়।

আমাদের ডোমেইনসমূহঃ

নতুন ওয়েব ঠিকানাঃ

www.earchive.site

পুরোনো ওয়েব ঠিকানাঃ

www.liberationwarbangladesh.org
www.liberationwarbangladesh.com

আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নিয়ে ব্যাপক বিকৃতি হয়েছে এবং বর্তমান সময়েও একটি দেশদ্রোহী মহল মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করার এই অপচেষ্টাকে রুখে দেয়ার জন্য 'মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ ট্রাস্ট' কাজ করে যাচ্ছে।

এই লক্ষ্যে 'মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ ট্রাস্ট' কয়েকটি উদ্যোগ গ্রহণ করেছে:
  • মুক্তিযুদ্ধ ই-লাইব্রেরি।
  • মুক্তিযুদ্ধের ছবির সংগ্রহশালা।
  • বাংলাদেশ নিউজপেপার আর্কাইভ।
  • ৭১'এর গণহত্যা ও নির্যাতন আর্কাইভ।
  • মুক্তিযুদ্ধ পাঠশালা।
  • মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা ও প্রকাশনা কেন্দ্র।

মুক্তিযুদ্ধ ই-লাইব্রেরিঃ
লিংক
মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করার অপচেষ্টাকে ব্যর্থ করতে ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস সর্বস্তরের জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে এবং মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস চর্চার লক্ষ্যে ২০১৪ সালের ০৪ মে 'মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ' যাত্রা শুরু করে। ২০১৭ সালের শেষার্ধে এই উদ্যোগকে 'মুক্তিযুদ্ধ ই-লাইব্রেরি' নামকরণ করা হয়।

'মুক্তিযুদ্ধ ই-লাইব্রেরি' হলো মুক্তিযুদ্ধের বই, দলিল, ডকুমেন্টারী, ভিডিও ফুটেজ, চলচ্চিত্র, অডিও ও ছবির একটি ডিজিটাল লাইব্রেরী; যা পাঠকদের জন্য সম্পূর্ণ বিনামূল্যে উন্মুক্ত।

মুক্তিযুদ্ধের ছবির সংগ্রহশালাঃ
লিংক
মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ ট্রাস্টের প্রতিষ্ঠাতা সাব্বির হোসাইনের ব্যাক্তিগত সংগ্রহে থাকা মুক্তিযুদ্ধ ও এসম্পর্কিত দেশি-বিদেশি ফটোগ্রাফারের তোলা প্রায় ০৫ হাজার হাই কোয়ালিটি ছবি 'মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ ট্রাস্টের' মাধ্যমে জনসাধারণের দর্শনের জন্য উন্মুক্ত করা হলো।

বাংলাদেশ নিউজপেপার আর্কাইভঃ
লিংক
মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ সংক্রান্ত দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পত্রিকার ডিজিটাইড আর্কাইভ।

৭১'এর গণহত্যা ও নির্যাতন আর্কাইভঃ
লিংক
একাত্তরের গণহত্যা ও নির্যাতন সম্পর্কিত 'দলিল-বই-ছবি-ডকুমেন্টারি-ভিডিও-অডিও' নিয়ে নির্মিত একটি এভিডেন্সিয়াল আর্কাইভ।

মুক্তিযুদ্ধ পাঠশালাঃ
লিংক
'মুক্তিযুদ্ধ পাঠশালা' অডিও ডকুুমেন্টারির মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশের ইতিহাস প্রচারের কাজ করছে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা ও প্রকাশনাঃ
লিংক
'মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ ট্রাস্টের' মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা ও প্রকাশনা সংক্রান্ত বিভাগ।

কৃতজ্ঞতাঃ

মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভের’ চলার পথে একটিভিস্ট দেওয়ান মাবুদ আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল কবির বাদল, শিক্ষক এম নাঈম খান, উন্নয়নকর্মী লেনিন খান, চিকিৎসক মুহম্মদ গোলাম সরোয়ার, চিকিৎসক সুতপা সাহা, গবেষক ড. সুকমল মদোক, শিক্ষক জিয়া আরেফিন আজাদ, কর্পোরেট চাকুরিজীবী সায়েমুর রহমান, প্রকৌশলী মো. গোলাম কিবরিয়া তালুকদার, প্রকৌশলী আদিল মাহমুদ ও পূবালী ব্যাংক লিমিটেড বিভিন্ন সময় সদস্য হিসেবে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করেছেন।
এম. আই. খান, এস. এ. খান ও দেওয়ান মাবুদ আহমেদ মুক্তিযুদ্ধ ই আর্কাইভে এডমিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
মুক্তিযোদ্ধা শেখ মো. কাশেম, গণহত্যা গবেষক ডা. এম. এ. হাসান, মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাহফুজুর রহমান, শওকত বাঙালি, একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি, শওকত খান ও সুমিত চৌধুরী সমর্থনমূলক সহযোগিতা করেছেন।
মারুফ হোসেন, মশিউর রহমান, বিপুল, বিপাশা, তাহমিনা ও মাহিদুল ইসলাম নকিব টেকনিক্যাল সহযোগিতা করেছেন।
মুক্তিযুদ্ধ ই-আর্কাইভ সশ্রদ্ধ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছে শান্তা আনোয়ারের প্রতি। তাঁর আর্থিক সহযোগিতা ও অসাধারণ নেতৃত্ব ই-আর্কাইভকে অনেক উচ্চতায় নিয়ে গেছে।
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক আমাদের উদ্যোগগুলো বাস্তবায়ন করতে আমাদের অনেকেই উৎসাহ যুগিয়েছেন, পরামর্শ দিয়েছেন, মুক্তিযুদ্ধের বই-ছবি-দলিল-ডকুমেন্টারী সহ নানান কনটেন্ট সরবরাহ করেছেন, সহযোগিতা করেছেন ও সাথে থেকে কাজ করেছেন তাঁদের এবং আমাদের সকল পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

MuktiJuddho e-Archive (Bangladesh Liberation War Archive) is a Digital Library working with the 'collection, maintenance and public viewing' of the historical documents regarding the Bangladesh Liberation War, Genocide of Innocent Bengali People in 1971 and contemporary political events of Bangladesh. More than three million Bengalis were killed and half a million Bengali women were raped by Pakistan Military Forces, Biharis, Jamat-I-Islami, Islami Chatra Shangha (Now Islam-I-Chatra Shibir), Muslim League, Nezam-I-Islami Party, Razakars, Al-Shams, Al-Badr, Peace Committee, Muzahid Bahini during the nine months long Liberation War of Bangladesh in 1971.